ডায়াবেটিস রোগীদের কোন কোন ফল খাওয়া উচিত এবং কোন কোন ফল একেবারেই খাওয়া উচিত নয়?

  Generate Earning Link

ডায়াবেটিস রোগীদের সকল ফল খাওয়াই উচিত। শরীরের সঠিক পুষ্টির জন্য সকল খাদ্য উপাদানের প্রয়োজন। তাই, সকল খাবারই ডায়াবেটিস রেগীকে খেতে হবে। একজন ডায়াবেটিস রোগীর বয়স,ওজন ও সেক্স অনুযায়ী যতটুকু ক্যালরী প্রয়োজন তা অবশ্যই প্রতিদিন তাকে খেতে হবে। প্রতিদিন তাকে ৫ বার খেতে হবে — সকাল, দুপুর, রাত এর খাবার সাথে ১১টার দিকে ও বিকেল ৫ টার দিকে হালকা নাস্তা।। এই ৫ বার খেয়ে তার দৈনিক ক্যালরী পূরন করতে হবে, কোন ভাবেই ক্যালরী প্রয়োজন এর অতিরিক্ত নেয়া যাবে না। যে সকল খাদ্যে ক্যালরী নাই তা প্রচুর পরিমানে খেলেও রোগীর কোন সমস্যা হবে না — যেমন, সকল ধরণের শাক, শশা, লাউ, টক ফল প্রভৃতি। এখন আসি ফলের বিযয়ে। মিষ্টি ফল পরিমান মতো খেতে হবে-- যেমন সারা দিনে একটা ছোট কলা / আধা খনা আম / ৬টি লিচু/ এক টুকরো পেঁপে প্রভৃতি।। তবে অবশ্যই যে কোন একটি ফল খেতে হবে। টক ফল খেতে কোন বাধা নেই, যতো খুশি খেতে পারবে- যেমন কামরাঙা, লেবু, আমলকি প্রভৃতি।

 

ডায়াবেটিস এর গাইড লাইন পুস্তক ডায়াবেটিস সেন্টার থেকে দেয়া হয় সেখানে দেখবেন ছবি সহ প্রতিটি খাবারের কথা লিখা আছে। সেগুলো অনুসরণ করে একজন ডায়াবেটিস রোগী সকল ফলমূল খেতে পারেন।।

 

ডায়াবেটিসের রোগীদের সাধারণত টক মিষ্টি ফল খাওয়া উচিত।

কালোজাম ,শসা, আমলকি, তরমুজ, বাতাবি লেবু, পেয়ারা, আপেল এবং টমেটো,আনারস,ডালিম ইত্যাদি ফল খাওয়া যেতে পারে।

কালোজাম ,শসা পেয়ারা ডায়াবেটিস রোগীর জন্য খুবই উপকারী।

 

কালোজাম ,কালোজামের কচিপাতা, ছাল,গুটলি অর্থাৎ জামের বিচি শুকিয়ে গুড়ো করে খেলে ডায়াবেটিসে সূগারের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে না।

 

শসা ডায়াবেটিসের রোগীর জন্য খুবই প্রয়োজনীয় একটি ফল। এতে পেট ভরে এবং সূগারের মাত্রা কম করে।

অপর একটি ফল হল তরমুজ-

 

ডায়াবেটিস রোগীর ক্ষুধার ভাব বেশি,তাই তরমুজ খেলে পেট ভরা থাকবে এবং সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে ‌‌।

ডায়াবেটিস রোগী পেয়ারা এবং আপেল ও খেতে পারে।

বিশেষ কিছু কথা—প্রথম কথা হল দুশ্চিন্তা এবং মানসিক চাপ থেকে নিজেকে মুক্ত করুন। অন্তত সপ্তাহে একদিন ঘাম ঝরান।যাই খান না কেন তাকে শরীরের গঠনের কাজে লাগানোর চেষ্টা করুন। কঠোর পরিশ্রম করলে এবং খাবার ভালো হজম হলে রাত্রে ভালো ঘুমালে দুশ্চিন্তা না থাকলে ডায়াবেটিস আপনার কোন ক্ষতি করতে পারবে না।

শরীরের ভাবুঝে মাঝেমধ্যে রক্ত পরীক্ষা অবশ্যই করাবেন।প্রাতঃভ্রমন এবং যোগাসন ইনসুলিনের ক্ষরন বৃদ্ধি করে এবং রক্তের সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে।

 

যে কোন ফলই আপনি খেতে পারেন কিন্তু মাত্রা অতিরিক্ত নয়।ৠতু অনসারে আম, কলা, পেঁপে,আনারস, ডালিম, আপেল ,আঙ্গুর, কমলা অবশ্যই খাবেন, কিন্তু লোভের বশে বেশি খেলে তার পরিণাম আপনাকে ই ভোগ করতে হবে।

Enjoyed this article? Stay informed by joining our newsletter!

Comments
Md Shorif Chowdhury - Jun 16, 2022, 3:46 PM - Add Reply

Good

You must be logged in to post a comment.

You must be logged in to post a comment.

Related Articles
About Author
Recent Articles
Dec 16, 2023, 8:16 PM allsharehd
Dec 13, 2023, 7:33 PM allsharehd
Jun 4, 2023, 8:43 PM allsharehd
May 1, 2023, 1:50 AM মোহাম্মদ রিদুয়ান